||| মুলুক যার ||| জোর তার |||

পশ্চিমবঙ্গ তথা সমগ্র ভারতে বিজেপির কোন বিকল্প নেই যারা ক্ষুদ্র রাজনৈতিক স্বার্থের উর্ধে গিয়ে নিরপেক্ষ ভাবে মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারে। স্বভাবতই বিজেপির প্রতি মানুষের প্রত্যাশা অগাধ, সে শিল্পায়ন হোক, অপরাধ দমন হোক বা সরকারি সংস্থায় কর্মী নিয়োগের পরীক্ষা ই হোক।

গত কয়েক বছরে পশ্চিমবঙ্গে কোটি কোটি টাকার ফর্ম বিক্রি হলেও প্রাইমারী টেট, এসএসসি টেট ইত্যাদি একটা পরীক্ষাও হয়নি। কেন হয়নি সেটা বলাই বাহুল্য, এই বিপুল অর্থ কোথায় গেল তাও মা সারদার কৃপায় আজ আর বলার অপেক্ষা রাখে না, কিন্তু এই দুর্নীতির বাহুল্যতা তো কারো পক্ষে বেশীদিন সহ্য করা সম্ভব নয়।

সময় বদলাচ্ছে, জলবায়ু বদলাচ্ছে, তালে তাল মিলিয়ে পতাকার রং - গদি সব বদলাচ্ছে.... প্রতারকদের প্রতারনার ধরন বদলাচ্ছে; বদলাচ্ছে না শুধু রাজ্যবাসীর প্রতারিত হওয়ার পরম্পরা / ভাগ্য।

প্রবাদ আছে "জোড় যার, মুলুক তার", যুগ যুগ ধরে চলে আসা এমন সম্পুর্ন অগণতান্ত্রিক প্রবাদ কে বিভিন্ন নৃশংস অপরাধ ও আর্থিক কেলেঙ্কারির মাধ্যমে এতকাল অনেক রাজনৈতিক দলই নির্দ্বিধায় স্বীকৃতি দিয়ে এসেছে, কিন্তু আমরা এই মতবাদ / প্রবাদকে সার্বিক ভাবে বিলুপ্ত করে "মুলুক যার, জোড় তার" এ পরিনত করব।

এই রাজ্যের যুব সম্প্রদায় কে কর্ম সংস্থানের জন্য ভিনদেশ তো দুর, ভিনরাজ্যেও যেতে দেব না; আর এটা কোন স্বান্তনা, প্রতিশ্রুতি নয় - এটা আমাদের নিজেদের কাছে নিজেদেরই শপথ।

কিভাবে দুর্নীতি-প্ররোচণায় নিরুপায় শিক্ষিত যুব সমাজ রোজগারের বিকল্প পথের সন্ধানে বিপথগামী হতে বাধ্য হচ্ছে তা সম্পর্কে আমরা সম্পুর্ন ওয়াকিবহাল ও যথেষ্ট দুশ্চিন্তাগ্রস্ত।

সার্বিক ভাবে প্রকৃত অর্থে পশ্চিমবঙ্গে পরিবর্তন আনতে গেলে কি কি করনীয় তার বিশদ তালিকা এবং তা বারংবার বিশ্লেষণের মাধ্যমে কার্যকর করার উপায় আমরা ইতিমধ্যে নিশ্চিত করে ফেলেছি। এখন শুধু উপযুক্ত সময়ের অপেক্ষা আর আপনাদের সহযোগিতা....

সুদিন শীঘ্রই ফিরবে, শুধু অনুরোধ ততদিন মিথ্যা প্ররোচনা, অপপ্রচারে কেউ বিভ্রান্ত হয়ে বিজেপির প্রতি বিশ্বাস-ভরসা হারাবেন না।

সুর বনাম অসুর যুদ্ধে অসুররা যতই শক্তিশালী হোক না কেন, জানবেন অন্তিমে সত্যের জয় নিশ্চিত।

by Smt. Moumita Bose Chakraborty