সন্ত্রাস নয়-তছরূপ নয় | সরকার হোক "মঙ্গলময়"

পশ্চিমবঙ্গের মানুষ কেন "বিজেপি" কেই ভোট দেবেন, সে ব্যাপারে নির্দিষ্ট কিছু বিষয় জনসমক্ষে তুলে ধরতে গিয়ে মনে হচ্ছিল যা লিখব তার সবটুকুই তো আপনাদের জানা; আপনারাই তো ভুক্তভোগী - কাল পরম্পরায় চলে আসা পশ্চিমবঙ্গের দুর্বিষহ রাজনৈতিক পরিস্থিতি সম্পর্কে সম্পুর্ন ওয়াকিবহাল। আপনাদেরই কেউ চিটফান্ড কেলেঙ্কারি তে সর্বস্বান্ত / নিঃস্ব তো কেউ চাকরির পরীক্ষার নামে বারংবার বঞ্চনার শিকার, কারো মেয়ে-ভাইঝি ধর্ষিতা তো কারো সন্তান অকালমৃত... 

পশ্চিমবঙ্গের মানুষের জীবন কালচক্রে সুরক্ষাহীন, অনিশ্চিত ও বিভীষিকা ময় হয়ে উঠছে। রাজনীতির নামে ভ্রষ্টাচারের চক্রবুহ্যে ক্রমশ তলিয়ে যাচ্ছ মানবাধিকার। যে প্রশাসনের নাগরিক সুরক্ষার দায়ভার বহনের কথা, সেই প্রশাসনের ঔদাসীন্য ও পক্ষপাত রাজ্যবাসীর সবচেয়ে দুশ্চিন্তার কারণ।
এই প্রশাসনিক পরিকাঠামোয় বিপ্লব ঘটিয়ে মানুষকে নিরাপত্তা সম্পর্কে সম্পুর্ন আশ্বস্ত করতে একমাত্র আমরাই পারি।

ভারতের অন্যান্য রাজ্য গুলোর সাথে পশ্চিমবঙ্গের জলবায়ু গত তারতম্যের মতোই রয়েছে রাজনীতির 'ধরন' এর বিস্তর ফারাক। বিগত কয়েক দশক ধরে খুনোখুনি হিংসার পরম্পরাকে সম্পুর্ন ভাবে বিলুপ্ত করে উন্নয়নমুখী মানববাদী রাজনৈতিক পরম্পরা প্রবর্তন করতে আমরা বদ্ধপরিকর।

পশ্চিমবঙ্গের হারিয়ে যাওয়া গরিমা, ঐতিহ্যের পুনরুদ্ধার তথা কর্ম সংস্কৃতিকে (একের পর এক বন্ধ হতে থাকা কল কারখানা) পুনরুজ্জীবিত ও আধুনিকরণের মাধ্যমে রাজ্যবাসীর জীবন ও জীবিকার মানোন্নয়নই আমাদের কাছে পাখির চোখ।

কেন্দ্রে উন্নয়নমুখী (বিজেপি) সরকার থাকার দরুন পশ্চিমবঙ্গের ১০০ ভাগ পরিকাঠামো গত পরিবর্তন আনতে আমাদের ব্যতিরেক দ্বিতীয় কোন বিকল্প হতে পারেনা।

চিকিৎসা ক্ষেত্রে বঞ্চনার হাত থেকে রাজ্যবাসীকে, বিশেষতঃ শিশুদের রক্ষা করতে সরকারি হাসপাতাল গুলিতে কেন্দ্রীয় সরকারের "বিনামুল্যে চিকিৎসা প্রকল্প", "জন ঔষধি" প্রকল্পের যথাযথ সুযোগ সকলকে পাইয়ে দেওয়া, যুগ যুগ ধরে চলে আসা সরকারি হাসপাতাল গুলির পরিকাঠামো গত অব্যবস্থা ও দুর্নীতি নিবারণ আমাদের সঙ্কল্প।

ক্ষুদ্র রাজনৈতিক স্বার্থসিদ্ধির প্রয়াসে জাতীয় নিরাপত্তা কে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে  রাজ্যকে সন্ত্রাসের আঁতুড়ঘর বানানোর যে সংস্কৃতি পশ্চিমবঙ্গ কে ক্রমশ ধ্বংসের পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে সেই ধ্বংসের হাত থেকে পশ্চিমবঙ্গ কে রক্ষা করতে আমরা সার্বিক ভাবে প্রস্তুত।

আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে আমরা জয়ী হলে পরিবর্তনের নামে প্রহসন ও স্বৈরাচারের অবসান হয়ে বাংলার মাটিতে নিশ্চিত ভাবে জাতীয়তাবাদ ও মানববাদ প্রতিষ্ঠিত হবে।

by Smt. Moumita Bose Chakraborty